Bangladeshআইন ও বিচার

অভিযুক্ত মানব পাচারকারী এমপি পাপুলের তদন্তে নেমেছে দুদক ও সিআইডি

Story Highlights
  • জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পাপুল টাকা দিয়ে বসিয়ে দিয়েছিলেন প্রতিদ্বন্দী জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে।
  • মানব পাচারকারী কাজী শহিদুল ইসলাম পাপুল দেশ-বিদেশে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার মালিক।
  • পাপুলের বিরুদ্ধে অপরাধের প্রাথমিক প্রমান পাওয়া গিয়েছে।
  • কুয়েতের রিমান্ডে ঘুষ দিতে চেয়েছিলো পাপুল।

মানবসেবার কথা বলে বিপুল পরিমান টাকা ঢেলে বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লক্ষীপুর-২ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন কাজী শহিদুল ইসলাম পাপুল।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে রাজনীতির মাঠে সুপ্রিয় না হয়েও প্রতিদ্বন্দী জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে টাকা দিয়ে বসিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। কিনে নিয়েছিলেন স্থানীয় দলীয় নেতাদের।

কুয়েতে ৬ জন মানব পাচারের অভিযোগে পাপুল গ্রেফতারের পর দেশে এই নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

দেশ-বিদেশে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার মালিক পাপুলের বিরুদ্ধে তদন্তে নামে সিআইডি ও দুদক।

এবং এরই মধ্যে তলব করা হয়েছে তার স্ত্রী, মেয়ে ও শ্যালিকার ব্যাংক হিসাব। নিষাধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে দেশ ত্যাগ করার।

দুদক চেয়ারম্যান বলছেন, পাপুলের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগটি খতিয়ে দেখছেন তারা।

আর সিআইডি দেখছে মানব পাচারের বিষয়টি।

দুটি ক্ষেত্রেই অপরাধের প্রাথমিক প্রমান পেয়েছে সংস্থা দুটি।

মানব পাচারের বিষয় আমরা দেখবো না। কারণ সেটি আমাদের দায়িত্বের মধ্যে পরে না। কিন্তু তিনি একজন সাংসদ হিসাবে যদি অর্থ পাচার করে থাকেন তাহলে সেই বিষয় গুলো আমাদের খতিয়ে দেখতে হবে।

দুদক চেয়ারম্যান, ইকবাল মাহমুদ

তদন্তে নেমেছে ফাইনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্ট ইউনিট। সংস্থাটি পাপুলের হিসাবের তথ্য চেয়ে সব ব্যাংকে চিঠিও দিয়েছে।

তবে এখন পর্যন্ত কোনো সংস্থায় তার বিরুদ্ধে মামলা করেনি।

অন্যদিকে পাপুল কাণ্ডে তোলপাড় কুয়েতের রাজনীতি।

রিমান্ডে ঘুষ নিয়ে কথা হয়েছিল। এবং তা শিকার করার পর দেশটির সরকারি দুই কর্ম-কর্তাকে গ্রেফতারের আদেশ দেয়া হয়েছে।

তার সঙ্গে কুয়েত সরকারের নানা ক্ষেত্রে অন্তত ৩৪ টি চুক্তি রয়েছে। একই সঙ্গে দেশটিতে তার কোম্পানির হয়ে অন্তত ৯ হাজার শ্রমিক কাজ করে বলে জানিয়েছে আরব টাইমস।

প্রলোভন দেখিয়ে ২০ থেকে ২৫ হাজার শ্রমিককে কুয়েতে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন করার অভিযোগ ওঠে পাপুলের মালিকানাধীন কোম্পানি মারাফি কুয়েতিয়া’র বিরুদ্ধে।

তবে নির্যাতনের শিকার হওয়া দেশে ফিরতে পেরেছেন।

Tags
Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close